যে খাবার প্রতিদিন থাবেন

শক্তি আসে খাবার থেকে। তাই শরীরে দরকার সুপারফুডের। এই সুপারফুডে রয়েছে হাজার রকম গুণ। নানা খাদ্যগুণে ভরপুর আর রোগ প্রতিরোধী এই সব খাবারের খবর আমরা অনেকেই রাখি না। আমাদের রান্নাঘরে এই খাবারগুলো সহজেই পাওয়া যাবে কিন্তু একেবারেই গুরত্বহীন ভাবে পড়ে থাকে।

হলুদ

প্রায় সব রান্নায় হলুদ দিতেই হয়। খাবারকে হালকা হলুদ বর্ণ করে দেয়াই শুধু এই মসলার কাজ এমনটাই অনেকে ভাবেন। কিন্তু হলুদ আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিতে পারে। এমনকি ক্যান্সার প্রতিরোধী উপাদানও রয়েছে হলুদের মধ্যে। গরম দুধে হলুদ মিশিয়ে খেলে ব্যথা-কষ্ট অনেক কমে।

দই

অনেকেরই ফ্রিজে দই থাকে কিন্তু খান না। কিন্তু প্রতিদিন এক বাটি দই অবশ্যই খান। দই খেলে হাইপারটেনশন ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। এছাড়া সুন্দর চুল ও শরীরের সঠিক আকার পেতে দই-এর জুড়ি নেই। দই হজম ক্ষমতা ও মেটাবলিজম রেট বাড়ায়।

কাঁঠাল

প্রোটিনে ভরপুর কাঁঠালের নানা উপকারিতা রয়েছে। গরমকালের এই ফল ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। এর মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি ত্বকের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়। অনেকে একে মাংসের বিকল্প খাবার হিসেবে মনে করেন।

মধু

ছোটবেলা থেকেই মধু খাওয়ানোর অভ্যাস করানো উচিত। পানিতে মধু, বিস্কুট বা রুটিতে মধুর প্রলেপ আমাদের সকলেরই মুখে লেগে থাকে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর মধু শরীরের প্রদাহ দূর করে। প্রতিদিন মধু খাওয়ার অভ্যাস হৃদরোগ ও ক্যান্সার দূরে রাখে।

ঘি

খিচড়ি বা সামান্য ডাল, ওপর থেকে এক চামচ ঘি ছড়িয়ে দিলেও স্বাদে-গন্ধে তা অনন্য হয়ে ওঠে। ঘি-এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড ও ভিটামিন এ রয়েছে। ঘি ঘা সারাতেও সাহায্য করে।

share this news:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *