তিউনিশিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, মৃত বেড়ে ৮২

তিউনিশিয়া উপকূলে অভিবাসনপ্রত্যাশী যাত্রীবাহী নৌকাডুবির ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮২ জনে দাঁড়িয়েছে। শনিবার তিউনিশয়া রেড ক্রিসেন্ট বলছে, উপকূলে ডুবে যাওয়া নৌকা থেকে এখন পর্যন্ত ৮২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গত সপ্তাহে ছোট একটি নৌকায় চেপে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা তিউনিশিয়া উপকূল পাড়ি দেয়ার সেটি ডুবে গেলে প্রাণহানির এ ঘটনা ঘটে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স বলছে, অতিরিক্ত যাত্রীবাহী ওই নৌকাটি প্রতিবেশি লিবিয়া থেকে ইউরোপের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল। তবে ডুবে যাওয়া নৌকার বেঁচে ফেরা অভিবাসনপ্রত্যাশীরা তিউনিশিয়ার কোস্ট গার্ডকে বলেছেন, নৌকাটিতে ৮৬ জন যাত্রী ছিলেন।

দেশটির জেলেরা ওই নৌকাটি ডুবে যাওয়ার পর চারজনকে জীবিত উদ্ধার করেন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা যান বলে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে।

তিউনিশিয়া রেড ক্রিসেন্টের কর্মকর্তা মঙ্গি স্লিম রয়টার্সকে বলেছেন, নৌকাটি ডুবে যাওয়ার পর এক সপ্তাহ ধরে তল্লাশি চালিয়ে ৮২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ইউরোপে পৌঁছানোর জন্য আফ্রিকান অভিবাসীদের প্রধান পথ লিবিয়ার পশ্চিম উপকূল। তবে অবৈধ পথে ইউরোপে পাড়ি জমানো ঠেকাতে ইতালি ও লিবিয়া কোস্ট গার্ডের প্রচেষ্টায় অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ঝুঁকিপূর্ণ যাত্রা আগের তুলনায় বর্তমানে কমে এসেছে।

গত মে মাসে লিবিয়া থেকে ইউরোপে যাওয়ার পথে তিউনিশিয়া উপকূলে ৬৫ অভিবাসনপ্রত্যাশীবাহী একটি নৌকা ডুবে যায়।

share this news:
WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com