৬ রানের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল: সায়মন টাফেল

পাঁচবার বর্ষসেরা আম্পায়ার হয়েছেন সায়মন টাফেল। তার কথা তো আর ফেলে দেয়া যায় না। এমনিতেই এই বিশ্বকাপে আম্পায়ারদের অনেক সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষোভ ঝাড়তে দেখা যায় বিশ্বকাপে অংশ নেয়া দলগুলোর। সেমি-ফাইনালে জেসন রয়কে ভুলভাবে আউট দিলেও সেই কুমার ধর্মসেনাকে আবারও দায়িত্ব দেয়া হয় ফাইনাল ম্যাচে।

এই ম্যাচে ৫০-৫০ একশ ওভারের খেলা শেষে ম্যাচ টাই হলে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। অবশেষে সুপার ওভারে নিষ্পত্তির মাধ্যমে শিরোপা উঠে ইংলিশদের হাতে।অথচ এই ম্যাচেও নাকি ভুল সিদ্ধান্তের শিকার নিউজিল্যান্ড। বলছেন সায়মন টাফেল।
ইনিংসের শেষ ওভারের চতুর্থ বলে বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে বল চলে যায় লেগ প্রান্তে। সেখান থেকে মার্টিন গাপটিলের থ্রোতে বল স্টোকসের ব্যাটে লেগে চলে যায় বাউন্ডারিতে। তাতে ইংল্যান্ড পেয়ে যায় ৬ রান। এখানেই আপত্তি সায়মন টাফেলের।
সাবেক এই অস্ট্রেলীয় আম্পায়ার যুক্তি দেখিয়েছেন, ওটা ৬ রান হবে না ৫ রান হবে। টাফেলের যুক্তি মতে, গাপটিলের থ্রোয়ের সময় স্টোকস ও রশিদ এক রান নিয়ে আরেক রান নেয়ার সময় একে অপরকে অতিক্রম করতে পারেননি। তাই এখানে ছয় রান নয়, পাঁচ রান হওয়ার কথা।
সেক্ষেত্রে পঞ্চম বলে স্টোকসের থাকার কথা নন-স্ট্রাইক প্রান্তে।দ্যা এজ এবং সিডনি মর্নিং হেরাল্ডকে দেয়া সাক্ষাৎকারে টাফেল আরও বলেন, এটা নিশ্চিতভাবে ভুল।ব্যাটে লেগে বল বাউন্ডারি ছুঁয়ে ফেলার পর স্টোকস তার দুই হাত তুলে জানিয়ে দেন, তিনি যে ইচ্ছাকৃত ভাবে সেটি করেননি। এরপর আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা ৬ রানের সংকেত দিয়ে দেন।
এক বলে ছয় রান চলে আসায় শেষ দুই বলে ইংল্যান্ডের লাগে ৩ রান। পঞ্চম বলে এক রান নিয়ে দ্বিতীয় রান নেয়ার সময় রান আউট হন আদিল রশিদ।শেষ বলে ১ রান নিয়ে ম্যাচ টাই করেন বেন স্টোকস। এই বলেও দুই রান নিতে গিয়ে রান আউট হন মার্ক উড।
share this news:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com