স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা

ভাসুরের স্ত্রীর (ভাবি) সঙ্গে স্বামীর পরকীয়া সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা করলো স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরের শিখরবালিতে। নিহতের নাম শকুন্তলা অধিকারী (২১)। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত স্বামী সুকুমার অধিকারীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে। খবর জিনিউজ এর।

জানা গেছে, বছর তিনেক আগে পেশায় কাঠমিস্ত্রি সুকুমার অধিকারীর সাথে প্রেম করে বিয়ে হয়েছিল শকুন্তলার। কিন্তু বিয়ের কয়েক মাস পর থেকেই নানা কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি শুরু হয়। সম্প্রতি সুকুমারের সঙ্গে তার বড় ভাইয়ের স্ত্রী (ভাবি) শান্তি অধিকারীর পরকীয়ার কথা জানতে পারেন শকুন্তলা। স্বামীর এই সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় শান্তির উপর বেড়ে যায় অত্যাচারের মাত্রা।

সংশ্লিষ্ট থানায় ঐ গৃহবধূ পনেরো দিন আগে স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করেছিলেন। এরপর গত সোমবার রাতে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন আগুন ধেরিয়ে দেয় ঐ গৃহবধূর শরীরে। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, শকুন্তলার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়রাই প্রথমে বারুইপুর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে কলকাতার বেসরকারি নার্সিংহোমে স্থানান্তরিত করা হয় ঐ গৃহবধূকে। শেষে মঙ্গলবার রাতে সেখানেই মৃত্যু হয় ওই গৃহবধূর। এ ঘটনায় বারুইপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন নিহতের বাবা রাম অধিকারী। অভিযুক্তরা এখনও পলাতক।

share this news:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com