যেমন হতে পারে প্রথম টি-টোয়েন্টির একাদশ

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সময়টা এখন ভালো যাচ্ছে না। গত সপ্তাহেই আফগানিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে টেস্ট হেরেছে টাইগাররা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বশেষ জয়টিও প্রায় তিন মাস আগে। এখন তাই সাকিব আল হাসানের দলের লক্ষ্য একটাই, জয়ের ধারায় ফেরা।

কাল (শুক্রবার) থেকে শুরু হচ্ছে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ, যে সিরিজে প্রথম ম্যাচেই মাঠে নামছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। মিরপুর শেরে বাংলায় ম্যাচ শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়।

এই ম্যাচটি দিয়েই জয়ের ধারায় ফিরতে চান টাইগার দলপতি সাকিব আল হাসান। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটা জিততে হবে। যদি আমরা সেটা করতে পারি, তবে সবকিছু নিয়ন্ত্রণের মধ্যে চলে আসার সুযোগ থাকবে।’

তিন ফরমেটের মধ্যে বাংলাদেশের সবচেয়ে খারাপ রেকর্ড এই টি-টোয়েন্টিতেই। র‍্যাংকিংয়ে টাইগাররা এখন ১০ নাম্বারে, জিম্বাবুয়ে ১৪। টুর্নামেন্টের আরেক প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান অনেকটা এগিয়ে ৭-এ।

ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজার দিকে প্রশ্ন উড়ে এসেছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে বাংলাদেশকে হারানো সহজ কিনা। জবাবে মাসাকাদজার উত্তর, ‘হ্যাঁ। কেননা ম্যাচের ফরম্যাট যত ছোট হবে, দলগুলোর ব্যবধান ততই কমে আসবে। টি-টোয়েন্টি এমন একটি ফরম্যাট, যেখানে যে কেউ একাই ম্যাচ টেনে নিতে পারে ও ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। সব মিলিয়ে এই ফরম্যাটে বড় দল কিংবা ছোট দল বলে কিছু নেই।’

জিম্বাবুয়ে তবে প্রচ্ছন্ন একটা হুমকি দিয়েই রাখলো! তারপরও যেহেতু টি-টোয়েন্টি ম্যাচ, কিছুটা পরীক্ষা নিরীক্ষার সুযোগ তো থাকেই। এই ম্যাচ দিয়েই অভিষেক হতে পারে দীর্ঘকায় পেসার ইয়াসিন আরাফাতের। একাদশে দেখা যেতে পারে টেস্ট সিরিজে দারুণ খেলা বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামকেও।

প্রস্তুতি ম্যাচে জিম্বাবুয়ের কাছে হারলেও বিসিবি একাদশের হয়ে ব্যাটে বলে খারাপ করেননি আফিফ হোসেন ধ্রুব। একটি টি-টোয়েন্টি খেলা ১৯ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডারের একাদশে থাকা বলতে গেলে নিশ্চিত।

তামিম ইকবালের অনুপস্থিতিতে ওপেনিংয়ের দায়িত্ব থাকবে দুই হার্ডহিটিং ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার আর লিটন দাসের ওপর। তিনে আরেক হার্ডহিটার সাব্বির রহমান। চারে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, পাঁচে মুশফিকুর রহীম, ছয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দীন খেলার কথা সাত নাম্বারে। অফস্পিনিং অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন আটে, তাইজুল ইসলাম নয়ে। আর দুই পেসার মোস্তাফিজুর রহমান আর ইয়াসিন আরাফাত দশ এবং এগারো নাম্বারে।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ : সৌম্য সরকার, লিটন দাস, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দীন, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তাইজুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান এবং ইয়াসিন আরাফাত।

share this news:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *