সিনেট থেকে পদত্যাগ চেয়ে শোভনের আবেদন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য থেকে পদত্যাগ চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও সিনেট সভাপতি বরাবর আবেদন করেছেন ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

সোমবার বিকেল ৪টায় শোভনের পক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন ছাত্রলীগের দফতর সম্পাদক আহসান হাবিব ও ডাকসু সদস্য রফিকুল ইসলাম সবুজ।

আবেদনপত্রে শোভন উল্লেখ করেন, যথাযথ সম্মান প্রদর্শনপূর্বক উপর্যুক্ত বিষয়ের বরাতে আপনাকে জানাচ্ছি যে, আমি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছি। বর্তমানে আমার ব্যক্তিগত সমস্যার কারণে আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করা সম্ভব নয়। এমতাবস্থায় আমি উক্ত পদ থেকে পদত্যাগ করতে আগ্রহী।

অতএব, বিনীত নিবেদন, আমার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে আমার ওপর আপনার অর্পিত সিনেট সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দানে বাধিত করবেন।

আবেদনপত্রে শোভন নিজে স্বাক্ষর করেছেন। মুঠোফোনে পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, এ সম্পর্কিত একটি আবেদন পেয়েছি। সেটি সংশ্লিষ্ট সভায় বিধি মোতাবেক সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েল সিনেটে পাঁচজন ছাত্র প্রতিনিধি থাকে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় গত ২৬ জুন। এতে পাঁচজন ছাত্র প্রতিনিধির মধ্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত হন। বাকি তিনজন হলেন- ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, জিএস গোলাম রাব্বানী ও সদস্য তিলোত্তমা শিকদার।

প্রসঙ্গত চাঁদাবাজিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে ছাত্রলীগের শীর্ষ পদ থেকে অপসারণ করা হয়েছে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীকে। সিনিয়র সহসভাপতি আল নাহিয়ান জয়কে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। শনিবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

share this news:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *